সম্প্রতি বাংলাদেশে মোসাদ ইস্যু আসার পর একটি নাম বার বার উচ্চারিত হচ্ছে, তা হলো- ‘মেন্দি এন সাফাদি’। বাংলাদেশের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো দাবি করেছে- সে একজন মোসাদ এজেন্ট। অপরদিকে স্বাভাবিকভাবে যেটা জানা যায়- মেন্দি এন সাফাদি ইসরাইলি ক্ষমতাসীন লিকুদ পার্টির একজন সদস্য। উল্লেখ্য মেন্দি এন সাফাদিকে অনেকেই ইহুদী ধর্মাবলম্বী বলে মনে করে। কিন্তু মেন্দি এন সাফাদি কিন্তু ইহুদী ধর্মাবলম্বী নয়। তার ধর্মের নাম ড্রুজ (Druze )। ড্রুজ আবার কারা ? ড্রুজ হচ্ছে ইসরাইলে বসবাসরত আরবীভাষী একটি প্রভাবশালী সংখ্যালঘু জাতি, যারা ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনীসহ রাজনৈতিক ও চাকুরী ক্ষেত্রে উচ্চ পদগুলো দখল করে রেখেছে। জানা যায়, ড্রুজ ধর্মের উৎপত্তি দশম শতাব্দীতে মিশরে। এই ধর্মের অনুসারীরা নিজেদের একেশ্বরবাদে বিশ্বাসী বলে দাবি করে, তবে তাদের ধর্মীয় মতবাদগুলো গ্রিক দর্শন থেকে আগত। অধিকাংশ ড্রুজ উগ্র জায়ান মতবাদে (জায়ানিস্ট) বিশ্বাসী। এরা নিজেদের ইহুদীদের রক্তের ভাই বলেই বর্ণনা করে থাকে। মেন্দি এন সাফাদির প্রকাশ্য কিছু পরিচয়- ১) কট্টর মুসলিমবিদ্বেষী ড্রুজ ইসরাইলী মন্ত্রী আ্ইয়ুব কারা’র সাবেক চিফ অফ স্ট্যাফ। ২) ‘মেন্দি এন সাফাদি সেন্টার’ নামক একটি আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক লবি গ্রুপের প্রধান। তবে বাংলাদেশের জন্য সবচেয়ে ভয়ানক তথ্য হচ্ছে- মেন্দি এন সাফাদি’র আরেকটি হিংস্র পরিচয় আছে। লেবাননের আরবী পত্রিকা Al-Akhbar এর দেওয়া তথ্য মতে, বাশার-বিরোধী আন্দোলন শুরু হওয়ার পর হেজবুল্লাহ ও সিরিয়ান এক্সপার্টরা ট্রজান হর্স ম্যালওয়্যাল দিয়ে মেন্দি এন সাফাদি’র পিসি হ্যাক করে গোপন তথ্য বের করে নিয়ে আসে। এই গোপন তথ্যের মধ্যে সবচেয়ে আকর্ষনীয় তথ্য ছিলো- সিরিয়াকে উ্ত্তপ্ত করার জন্য সিরিয়ান বিদ্রোহী গ্রুপ (আল নুসরা ফ্রন্ট বা সিরিয়ান আল কায়েদা) এবং আইএস (ইসলামিক স্টেট) কে অস্ত্র সরবরাহ করতে চুক্তি করেছিলো এই মেন্দি এন সাফাদি। এছাড়া ২০১৪ সালে আইএস’র সাথে ফের সাফাদি’র যোগাযোগ করার প্রমাণ পাওয়া যায়। পত্রিকাটি জানায়- এন সাফাদি সিরিয়া ও লেবাননে ইসরাইলী এজেন্ট রিক্রুট করতে কাজ করে (সে সাধারণ এজেন্ট নয়, এজেন্ট রিক্রুট করা তার কাজ) । সে ইসলামী বিদ্রোহী গ্রুপগুলোর হাতে অস্ত্র তুলে দেয় এবং বোমা হামলা করার টার্গেট পর্যন্ত ঠিক করে দেয়।

টাইমস অব ইসরাইলের রিপোর্ট : http://goo.gl/9AHgwg,

রাশিয়ান নিউজ সাইট স্পাটনিক – http://goo.gl/VjHrwO

আমি আগে আপনাদের অনেকবারই বলেছি, বাংলাদেশকে ইরাক-সিরিয়ার মত ধ্বংসস্তুপ বানানোর ষড়যন্ত্র চলছে। এবং যেই মেন্দি এন সাফাদি সিরিয়াকে ধ্বংসস্তুপ বানিয়েছে, সেই মেন্দি এন সাফাদি এবার নতুন প্রজেক্ট নিয়ে এসেছে বাংলাদেশে। বাংলাদেশের মানুষ এখনও ঘুমিয়ে আছে, তারা জানেও না তাদের জন্য কত ভয়ঙ্কর ভবিষ্যত তৈরী করতে নেমেছে ইসরাইলি জায়ানিস্টরা।

লেখক: নয়ন চ্যাটার্জি

Advertisements