ঢাকার গোলাপবাগে ‘সেইফ হাউজ’ নামক বাড়িতে তথাকথিত ‘আন্তর্জাতিক’ অপরাধ ট্রাইব্যুনালে আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেয়ার জন্য সাক্ষীদের ঢাকায় এনে দিনের পর দিন ট্রেনিং দেয়া এবং তাদের থাকা খাওয়ার জন্য ব্যবহৃত রেজিষ্টারের ০২/০২/২০১২ তারিখের একটি পৃষ্টা এটি। আমরা পুরো রেজিষ্টার বইটিই ট্রাইব্যুনালে দাখিল করেছিলাম।

বন্ধুরা !!
খুব গভীরভাবে পৃষ্টাটি লক্ষ করুন। দেখুন, বাংলাদেশের প্রত্যেকটি থানায় সাধারন ডায়েরী লিপিবদ্ধ করার জন্য যে ধরনের রেজিষ্টার ব্যবহার করা হয়, এই সেইফ হাউজে একই ধরনের রেজিষ্টার ব্যবহার করা হয়েছে। পৃষ্টার শুরুতেই দেখুন পৃষ্টাটির নম্বর দেয়া আছে ০১০৬৩০২। বাঃনিঃমুঃ ১৮/২০১১-২০১২/৬০,০০,০০০ কপি মুঃআঃনঃ-১২/১১-১২ হিসেবে মুদ্রন আদেশ নম্বরটিও উল্লেখ আছে পৃষ্টাটিতে।

সেইফ হাউজে ০২/০২/২০১২ তারিখে উক্ত সেইফ হাউজের দ্বায়িত্বে যে ইন্সপেক্টর, সাব-ইন্সপেক্টর, পালাক্রমিক পাহারারত কন্সটেবল এবং ১নং পোষ্টের দায়িত্বে যারা ছিলেন তাদের প্রত্যেকের নাম এবং কন্সটেবল নম্বরও উল্লেখ আছে।

এতকিছু থাকার পরেও সরকারের আজ্ঞাবহ আইনজীবী, মিথ্যাবাদী তদন্ত সংস্থা এবং মহা প্রতারক তদন্তকারী কর্মকর্তা ট্রাইব্যুনালে উপস্থাপন করা এই ডকুমেন্টটিকে আমাদের পক্ষ থেকে মামলার প্রয়োজনে জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে তৈরী করা বলে মন্তব্য করেছিল। তাদের এই মন্তব্যে ‘মহামান্য’ ট্রাইব্যুনালও খুশি হয়ে এটিকে জাল ডকুমেন্ট হিসেবে ঘোষনা দিয়েছিল।

এখন প্রশ্ন হলঃ-
# এই পৃষ্টাটির উপরে যে ক্রমিক নম্বর আছে সেটিতো একটি ইউনিক নম্বর। সেটিতো আমরা কেন কারো পক্ষেই পক্ষে জাল করা সম্ভব নয়। ঐ ক্রমিক নম্বরের পৃষ্টাটি তদন্ত সংস্থা ট্রাইব্যুনালে হাজির করলেই তো প্রমান হয়ে যেতো কে সত্য বলছে আর কে মিথ্যা। তাহলে ট্রাইব্যুনালে ঐ ক্রমিক নম্বরের পৃষ্টাটি উপস্থাপন করা হলনা কেন?

# ০২/০২/২০১২ তারিখে সেইফ হাউজের দ্বায়িত্বে যে ইন্সপেক্টর, সাব-ইন্সপেক্টর, পালাক্রমিক পাহারারত কন্সটেবলরা ছিলেন তাদের প্রত্যেকের কন্সটেবল নম্বর এই পৃষ্টায় উল্লেখ আছে। এতোসব পুলিশের কনষ্টেবল নম্বর তো আমাদের জানার কথা নয়! এইসব পুলিশকে ট্রাইব্যুনালে এনে জিজ্ঞাস করলেই তো বের হয়ে যেত যে, তারা ঐ দিন সেইফ হাইজে দ্বয়িত্ব পালন করেছিল কিনা। তাহলেই তো প্রমান হয়ে যেত সেইফ হাউজ ছিল এবং এখানে এনেই সাক্ষীদের দিনের পর দিন ট্রেনিং দিয়ে ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হতো। তা না করে এই পুরো বিষয়টিকেই এড়িয়ে যাওয়া গেল কেন ?????

প্রতারনারও তো একটা সীমা থাকে .. !!

নিরীহ-নির্দোষ আল্লামা সাঈদীকে অন্যায়ভাবে অপরাধী বানানোর জন্য কত হাজারো ষড়যন্ত্র এইসব বিবেকহীন মানুষেরা করেছে, বুঝতে পারছেন ?!

ফেসবুক: : Masood Sayedee

Advertisements