dr kamalড. কামাল হোসেন বলেন: স্বাধীনতার ৪২ বছর পর আজ বাংলাদেশের জনগণের জীবন ও সম্পদ নিরাপদ নয়। পত্র-পত্রিকায় প্রতিদিন বিচার বহির্ভূত হত্যা, খুন ও গুমের সংবাদ পাঠ করে জনগণ শংকিত ও আতংকিত। তিনি বলেন, সুস্পষ্টভাবে বলতে চাই যে, বিচার বহির্ভূত হত্যা-গুম মানবতাবিরোধী কাজ এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

সোমবার গণফোরাম কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভাপতি পরিষদের সভায় ড. কামাল হোসেন একথা বলেন।
ড. কামাল হোসেন আরো বলেন, ভীত-সন্ত্রস্ত জনগণ শুধু জীবনের নিরাপত্তা খুঁজছে। আর জনগণকে নিরাপত্তা দেয়ার দায়িত্বে নিয়োজিত আইন শৃংখলা বাহিনী ক্রমাগত বিচার বহির্ভূত হত্যা ও গুমের সাথে জড়িয়ে পড়ছে। এ বিভিষীকাময় পরিস্থিতিতে নাগরিক হিসাবে আমরা সবাই উদ্বিগ্ন। একটি স্বাধীন গণতান্ত্রিক দেশে এ পরিস্থিতি চলতে পারে না এবং মেনে নেয়া যায় না।

ড. কামাল হোসেন আরো বলেন, জনগণের জান ও মালের নিরাপত্তা চাই; আইনের শাসনের নিশ্চয়তা চাই। আর এজন্য কালবিলম্ব না করে সরকারকে সকল ধরনের বে-আইনী তৎপরতা বন্ধ করতে হবে। অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে বিচার করতে হবে এবং জনমনে স্বস্তি ও শান্তি ফিরিয়ে আনতে হবে। অন্যথায়, কঠিন জবাবদিহিতার জন্য তৈরী হতে হবে।

গভায় আরো বক্তব্য রাখেন কমান্ডার অব. আবদুর রউফ, অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, মোস্তফা মোহসীন মন্টু, অ্যাডভোকেট এস এম আলতাফ হোসেন, অ্যাডভোকেট জগলুল হায়দার আফ্রিক, অ্যাড ডভোকেট আ ও ম শফিক উলাহ, মোশতাক আহমেদ।

সূত্র: নয়াদিগন্ত

Advertisements