Sonali Bank copyরাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংকে এবার ডিজিটাল লুটের ঘটনা ঘটেছে। ২০১৩ সালের মাঝামাঝি সময়ে ব্যাংকের সার্ভার হ্যাক করে আড়াই লাখ ডলার (১ কোটি ৯৫ লাখ টাকা) হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারকচক্র।

শনিবার ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব ড. এম আসলাম আলম এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, হলমার্ক কেলেঙ্কারির রেশ কাটতে না কাটতেই অভিনব এই জালিয়াতির ঘটনা ঘটে।

এছাড়া সার্ভার হ্যাক করে অর্থ লুটের ঘটনায় বর্তমানে ব্যাংকটির অনলাইন নিরাপত্তাও হুমকিতে রয়েছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

শনিবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে অনুষ্ঠিত সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের ‘বার্ষিক সম্মেলন ২০১৪’তে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব তথ্য প্রকাশ করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

সচিব বলেন, গত বছরের মাঝামাঝি সময় হ্যাকাররা অবৈধভাবে হ্যাক করে আড়াই লাখ ডলার নিয়ে গেছে। এটা ব্যাংকের নিরাপত্তার জন্য হুমকি।

মুহিত বলেন, ২০১২ সালে হলমার্কের জালিয়াতি সোনালী ব্যাংকের অভ্যন্তরীণ দুর্বলতার কারণে ঘটেছে।

তিনি বলেন, ব্যাংকিং ব্যবস্থায় যেসব জাল জালিয়াতির ঘটনা ঘটে তার মূলে থাকে অভ্যন্তরীণ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার দুর্বলতা। এসব জালিয়াতি রোধে ব্যাংকগুলোকে অভ্যন্তরীণ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা জোরদারের নির্দেশ দেন অর্থমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ব্যাংকের যে অলস সম্পদ রয়েছে তা ব্যবহার করে ব্যবসা বাড়াতে হবে। ব্যাংকগুলোকে জনসেবামূলক প্রতিষ্ঠান হতে হবে। ব্যাংকের পরিবেশ যেন সুন্দর ও সুস্থ হয়। সকলের আস্থা সকলের বিশ্বাস নিয়ে কাজ করতে হবে।

মুহিত বলেন, এখন ব্যাংকিংয়ের জন্য ব্যাংকে যেতে হয় না। অনলাইনেই সব কাজ হয়ে যায়। তবে এ কাজ করতে গিয়ে গ্রাহককে যেন প্রযুক্তিগত হয়রানির শিকার না হতে হয়।

সোনালী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ড. এ এইচ এম হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রদীপ কুমার দত্ত, পরিচালনা পর্ষদের অন্যান্য সদস্য সহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: আরটিএনএন

Advertisements